Dual track diplomacy

আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি
Content Protection by DMCA.com

বিসিএস লিখিত + ভাইভা প্রস্তুতি
আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী
Dual track diplomacy || ডুয়েল ট্র্যাক ডিপ্লোম্যাসি

বর্তমান বিশ্বরাজনীতিতে বহুল আলোচিত একটি কূটনৈতিক সিস্টেম। বাংলায় যাকে বলা হয় দ্বৈত ট্রাক কূটনীতি। অনেকে আবার এটাকে Track II diplomacy অথবা Backchannel diplomacy হিসেবেও আখ্যায়িত করে থাকে। মূল কথা হচ্ছে এই ডিপ্লোম্যাসির মধ্যে দুইটা সিস্টেম একসাথে কাজ করে। নিচে উদাহরণের মাধ্যমে সহজকরে বুঝানোর চেষ্টা করছি।

উদাহরণ -০১:

এটা রাষ্ট্রের এমন কূটনৈতিক সিস্টেমকে বুঝায় যেখানে রাষ্ট্র একসাথে দুই ধরনের কূটনীতি ব্যাবহার করে। উদাহরণস্বরূপ; উত্তর কোরিয়ার সামরিক তৎপরতা বন্ধের জন্য যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি আলোচনা করে থাকে। এটা হলো ফাস্ট ট্রাক।

এবং একইসাথে যুক্তরাষ্ট্র অন্য কোন শক্তি যেমন জাতিসংঘের মাধ্যমে উত্তর কোরিয়ার উপর অর্থনৈতিক চাপ প্রয়োগ করে। এটা হলো সেকেন্ড ট্রাক। তাই উত্তর কোরিয়ায় প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের যে ডিপ্লোম্যাসি সেটা হলো ডুয়াল ট্রাক বা দ্বৈত ডিপ্লোম্যাসি।

উদাহরণ -০২:

অন্য দেশের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক বজায় রাখতে রাষ্ট্র যদি সরকারি (State factors) ও বেসরকারি (Non state factors) উভয় মাধ্যম ব্যবহার করে।

প্রথম মাধ্যমটা হলো ডিরেক্টলি সরকার টু সরকার। অর্থাৎ সম্পর্ক রক্ষায় দুইটি দেশের সরকারের মধ্যে অফিশিয়ালি যে আলোচনা বা ডায়ালগ হয় অথবা কোনো সরকারি কর্মকর্তাকে প্রতিনিধি হিসেবে ঐ দেশে পাঠানো হয়।

দ্বিতীয় মাধ্যমটা হলো ইনডিরেক্টলি। বিভিন্ন প্রাইভেট কোম্পানি, মাল্টিন্যাশনাল কর্পোরেশন বা সংস্থার মাধ্যমে দুইটি দেশের মধ্যে যে কূটনৈতিক তৎপরতা বজায় রাখা হয়।

কূটনৈতিক দুনিয়ায় ডুয়াল ট্রাক ডিপ্লোম্যাসির মতো আরো অনেক ধরনের কূটনীতি রয়েছে। উদাহরণস্বরূপ;

– Ping- pong diplomacy,
– People’s Diplomacy,
– Classical Diplomacy,
– Electronic Diplomacy,
– Gun Boat Diplomacy

Dual track diplomacy ছাড়া আরও পড়ুনঃ

ফেইসবুকে আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল পেইজ ও অফিসিয়াল গ্রুপের সাথে যুক্ত থাকুন। ইউটিউবে পড়াশুনার ভিডিও পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন। আপডেট পেতে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেল যোগ দিতে পারেন। আমাদের সাইট থেকে কপি হয়না তাই পোস্টটি শেয়ার করে নিজের টাইমলাইনে রাখতে পারেন অথবা পিডিএফ আইকনে ক্লিক করে ডাউনলোড ও করে নিতে পারেন।